বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭


পুলিশের নির্দয় উচ্ছেদ অভিযান প্যারিসে কম্বল চুরির ধুম ঠা-ায় কাবু অভিবাসীরা


আমাদের অর্থনীতি :
10.01.2017

রাশিদ রিয়াজ: তীব্র শীত ও বরফপাতের মধ্যে ফ্রান্সের প্যারিসে কম্বল চুরির ধুম পড়েছে। অভিবাসী ও শরণার্থীরা এ ধরনের কম্বল চুরির সঙ্গে জড়িত বলে পুলিশ তাদের রাস্তা থেকে হটিয়ে দিচ্ছে। সাহায্য সংস্থা ডক্টরস উইদাউট বর্ডারস আশঙ্কা করে বলছে, পুলিশ অভিবাসীদের এভাবে বিপদের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। একটি দাতব্য সংস্থা বলেছে, অন্তত ৮ জন অভিবাসীকে তারা উদ্ধার করে দেখভাল করছে যারা হাইপোথারমিয়া বা শরীরে রক্তচাপ অস্বাভাবিকভাবে হ্রাসজনিত সমস্যায় পড়েছিল। তবে পুলিশ বলছে অভিবাসীদের তাঁবু সরিয়ে ফেলতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
কিন্তু ডক্টরস উইদাউট বর্ডার এক টুইট বার্তায় বলছে, প্যারিসের রাস্তায় অভিবাসীদের ঘুমানো বন্ধ করার ব্যাপারে পুলিশ যে অভিযানে নেমেছে তা বন্ধ করা উচিত। এ ধরনের অভিযান তাদের কঠিন শীতে মারাত্মক বিপর্যয়ের মুখে ফেলেছে। আফগানিস্তান ও সিরিয়া থেকে শত শত অভিবাসী প্যারিসের রাস্তায় প্লাস্টিকের তাঁবু বা কোম্বল মুড়ি দিয়ে টিকে থাকার চেষ্টা করছে। এদের অনেকে ফ্রান্স থেকে ব্রিটেনে যাওয়ার চেষ্টা করছে।
প্যারিসের ক্যালাইস এলাকায় ‘জঙ্গল’ শরণার্থী ক্যাম্পে অন্তত ১০ হাজার অভিবাসী গত অক্টোবর থেকে বাস করছে। বন্দর এ নগরীটি অভিবাসীদের জন্যে মুক্ত অঞ্চলে পরিণত হয়েছে। পার্ক, খোলা চত্ব¡রে বাস করার পাশাপাশি তারা প্যারিসে যাওয়ার চেষ্টা করছে। এদের জন্যে একটি শরণার্থী ক্যাম্প থাকলেও সেখানে মাত্র ৪শ লোকের দেখভাল করার ব্যবস্থা রয়েছে এবং এ ক্যাম্পে অভিবাসীরা মাত্র দুই সপ্তাহ থাকার সুযোগ পায়।
এদিকে ফ্রান্সের দাঙ্গা পুলিশ অভিবাসীদের তাঁবু উচ্ছেদের নির্দেশ দিয়েছে। এজন্যে লাঠিচার্জ, টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপের ঘটনাও ঘটছে। সকালে সূর্য ওঠার আগেই এ ধরনের অভিযান শুরু করছে ফ্রান্সের পুলিশ যখন তাপমাত্রা থাকছে হিমাঙ্কের নিচে। স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকরা বলছেন, অভিবাসীদের অনেকেই জানেন না ইউরোপের শীত কতটা তীব্র হতে পারে। তাদের অনেকেই ঠা-ায় জমে যাচ্ছে। মরণাপন্ন অবস্থায় তারা পড়ে থাকলেও পুলিশ কোনো পাত্তা দিচ্ছে না। সূত্র: দি সান