বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০১৭


রাজধানীতে দুই সন্তানকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা


আমাদের অর্থনীতি :
11.01.2017

 

মাসুদ আলম: রাজধানীর দারুস সালাম থানার ছোট দিয়াবাড়ি এলাকার একটি বাসা  থেকে মা ও দুই শিশু সন্তানের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন  আনিকা (২০)  তার দুই সন্তান  শিশু আব্দুল্লাহ (৩) ও  শামীমা (৫)।  পুলিশ বলছে দুই সন্তানকে হত্যার পর মা আনিকা আত্মহত্যা করেছেন। গতকাল দুপুর সাড়ে তিনটার দিকে  ২৯/১ ছোট দিয়াবাড়ি থেকে পুলিশ লাশ  উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকে আনিকার স্বামী শামীম হোসেন পলাতক রয়েছে।

তবে কি কারণে এ হত্যাকা- এ বিষয়ে পুলিশ নিশ্চিত হয়ে কিছু বলতে পারেনি। ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহ, পূর্বশত্রুতা  বা  পরকীয়ার কারণে এ হত্যাকা- হয়ে থাকতে পারে। পুলিশ বলছে মা আনিকা প্রথমে দুই সন্তানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে। এর পর নিজে সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। দুপুরে এক প্রতিবেশী আনিকাকে অনেকক্ষণ ডাকাডাকি করে। কিন্তু ঘরের ভিতর থেকে কোনো সাড়া শব্দ না পাচ্ছিলেন না তিনি। পরে জানালা দিয়ে দেখতে পান আনিকার লাশ ফ্যানের সাথে ঝুলছে। পরে পুলিশকে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে এসে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠান।

এ বিষয়ে দারুস সালাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুকুল আলম বলেন, দুই শিশুর মরদেহ বিছানার উপর এবং মায়ের মরদেহ ফ্যানের সঙ্গে ওড়না দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। আনিকার স্বামীর নাম শামীম হোসেন। স্বামী-স্ত্রী দুই সন্তানসহ দিয়াবাড়ির ওই ভাড়া বাসায় থাকতেন। প্রতিবেশীরা জানান, স্বামী-স্ত্রী মধ্যে প্রায় সময় ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকত। ধারণা করা হচ্ছে, অভিমান করে আনিকা তার দুই সন্তানকে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন। শামীম দিয়াবাড়ি এলাকার এক সেলুনে কাজ করেন। তার গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জের মকসুদপুরে। দুপুরে শামীম বাসায় বাজার করে দেয়। এর পর সে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের সমাবেশে যায়। শামীমের গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জে। আনিকার গ্রামের বাড়ি নওগাঁ জেলার মহাদেবপুরে। আনিকার বাবা নেই। তার মাকে খবর  দেওয়া হয়েছে।  সম্পাদনা: এনামুল হক