শনিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে : সিলেটে অর্থমন্ত্রী


বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে : সিলেটে অর্থমন্ত্রী


আমাদের অর্থনীতি :
11.01.2017

 

আশরাফ চৌধুরী রাজু, সিলেট: ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল সিলেট-এ ক্যাথল্যাব উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৩টায় সিলেট নগরীর শাহী ঈদগাহস্থ হাসপাতালে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন  অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এমপি। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। ইতোমধ্যেই আমাদের দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে-এব্যাপারে সন্দেহ নেই। আর এমন একটি সফলতা আমরা পেয়ে গেছি প্রধানমন্ত্রীর নির্ধারিত সময়ের পাঁচ বছর আগেই। ২০৪১ সালের মধ্যে অবশ্যই বাংলাদেশ একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে। অর্থমন্ত্রী বলেন, অন্যরা একটি কাজ যেখানে ৫০-৬০ বছরে করে, সেখানে বাঙালিরা তা ২০ বছরে করতে পারে। কারণ বাঙালির কর্মক্ষমতা খুবই ভালো। তিনি বলেন, জীবনযাত্রার মানের পরিবর্তনের সাথে সাথে নতুন নতুন স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিচ্ছে। সে ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি একান্ত জরুরি। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেট-এর সভাপতি অধ্যাপক এম.এ রকিবের সভাপতিত্বে ও হাসপাতালের প্রকাশনা সম্পাদক আবু তালেব মুরাদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন- সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি, অর্থ ও পরিকল্পান প্রতিমন্ত্রী এম.এ মান্নান এমপি, ন্যাশনাল হার্ট ফাইন্ডেশন অব বাংলাদেশের সভাপতি, জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিক, বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান, সাবেক এমপি হাফিজ আহমদ মজুমদার, জাতীয় অধ্যাপক ডা. শাহলা খাতুন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী ও ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশের মহাসচিব অধ্যাপক খন্দকার আব্দুল আউয়াল (রিজভী)। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেটের সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. আমিনুর রহমান লস্কর। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবির প্রেক্ষিতে অর্থমন্ত্রী এক সপ্তাহের মধ্যে একটি অ্যাম্বুলেন্স প্রদানের আশ্বাস দেন।

এদিকে, সিলেটের ১০টি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় সিলেট আদালত প্রাঙ্গণে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি এসব প্রকল্পের ফলক উন্মোচন করেন। প্রকল্পগুলো হলো- সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির নবনির্মিত ৫তলা বিশিষ্ট ৫নং বার হল ভবন, সার্কিট হাউজ প্রাঙ্গণে নির্মিত মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ ‘উদ্দীপন’, শাহী ঈদগাহের মিনার কমপ্লেক্স, সিটি করপোরেশনের নির্মিত ৪টি সড়ক, সংস্কৃত কলেজের নতুন ভবন, পিডিবি-১ এর ভবন, লাক্কাতুড়া হাইস্কুল, বাদাঘাট পল্লী বিদ্যুৎ সাবস্টেশন, জালালাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সের ভবন, রাখালগুল প্রাথমিক বিদ্যালয় ও জৈনকারকান্দি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন। সরকারি অর্থায়নে বাস্তবায়নকৃত এসব প্রকল্পের ফলক উন্মোচন শেষে অর্থমন্ত্রী সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতি আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

এদিকে, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, বিচারকাজে সম্পৃক্তরা দেশ ও জাতির অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছেন। তাই এ কাজের সাথে সম্পৃক্ত সবাইকে সততা, নিষ্ঠা ও স্বচ্ছতার মাধ্যমে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে। মনে রাখতে হবে নিজের একটু ভুলের কারণে অন্যের অনেক বড় ক্ষতি হতে পারে। প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির বার হল-৫ এর নতুন ভবনের উদ্বোধন উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় আদালত প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, সিলেটের আইনজীবী সমিতি শত বছরের পুরনো একটি প্রতিষ্ঠান। এখানে অনেক গুণী ব্যক্তি কাজ করেছেন। তাদের মতো বর্তমানে কর্মরত আইনজীবীরাও সমিতির সুনাম অক্ষুণœ রেখে এগিয়ে যাবেন। তিনি বলেন, ব্রিটিশ শাসনের সময়ে সিলেটকে আসামের সাথে যুক্ত করা হয়। তবে শর্ত ছিল এখানকার শিক্ষা ব্যবস্থায় কলকাতার প্রাধান্য থাকবে। আর বিচার ব্যবস্থা চলবে বাংলার আইনে। অর্থ্যাৎ আসামের কোর্ট এখানে একদিনের জন্যও বসেনি।