রবিবার ২২ অক্টোবর ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » আমিরাতের রাষ্ট্রদূত ও কান্দাহারের গভর্নরসহ আহত ২৩
    কান্দাহার ও হেলমান্দ প্রদেশে বোমা হামলায় আমিরাতের ৫ কূটনীতিকসহ নিহত ১৮


আমিরাতের রাষ্ট্রদূত ও কান্দাহারের গভর্নরসহ আহত ২৩
কান্দাহার ও হেলমান্দ প্রদেশে বোমা হামলায় আমিরাতের ৫ কূটনীতিকসহ নিহত ১৮


আমাদের অর্থনীতি :
12.01.2017

ইমরুল শাহেদ: বুধবার আফগানিস্তানের কান্দাহার প্রদেশ ও হেলমান্দ প্রদেশে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্ততপক্ষে ১৮ জন নিহত হয়েছেন। আল জাজিরা জানিয়েছে,  কান্দাহারের বোমা বিস্ফোরণে ১১ জন নিহত ও ১৭ জন আহত হয়েছেন। নিহত ১১ জনের মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পাঁচ কূটনীতিকও রয়েছেন। আহত হয়েছেন আফগানিস্তানে নিযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত জুমা আল কাবিও। এছাড়াও আহত হয়েছেন কান্দাহারের গভর্নর হুমায়ুন আজিজি। হেলমান্দের অতিথিশালায় অপর বোমা হামলায় নিহত হয়েছেন ৭ জন এবং আহত হয়েছেন ছয় জন বেসামরিক নাগরিক। জাতিসংঘ এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে।

আমিরাতের

কর্মকর্তারা বার্তা সংস্থা ডব্লিউএএমকে জানিয়েছে, তারা সেখানে মানবাধিকার, শিক্ষা ও উন্নয়ন প্রকল্পের একটি মিশনে ছিলেন। কান্দাহারের সরকারি অতিথিশালায় কূটনীতিকরা রাতের খাবার খেতে সমবেত হয়েছিলেন। এ সময় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটে। বার্তা সংস্থা টোলো জানিয়েছে, আরব আমিরাতের কূটনীতিকদের নিহত হওয়ার কারণে সরকার তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে এবং জাতীয় পতাকা অর্ধ-নমিত রাখার নির্দেশ দিয়েছে।  আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানের যে তিনটি শহরে ধারাবাহিকভাবে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে বুধবারের ঘটনাটি তার একটি। মঙ্গলবারের বিস্ফোরণে কাবুল ও কান্দাহারে নিহত হয়েছে ৭০ জন এবং  আহত হয়েছে শতাধিক। দুবাইয়ের শাসক মোহাম্মদ বিন রশিদ আদল মাক্তুম, আমিরাতের প্রধানমন্ত্রী ও ভাইস প্রেসিডেন্ট টুইটার বার্তায় বলেছেন, অন্যকে সহায়তা করতে যাওয়া মানুষগুলোকে হত্যা করার কোনো মানবিক, নৈতিক বা ধর্মীয় যৌক্তিকতা নেই।’

কান্দাহারের প্রাদেশিক সরকারের মুখপাত্র শামিম কপোলাক এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি নিজেও আহত হয়েছেন। ওই মুখপাত্র বলেন, নিহতদের মধ্যে অন্ততপক্ষে চারজন অ্যারাবিয়ান রয়েছেন, যারা দেহরক্ষীর দায়িত্ব পালন করছিলেন।

কান্দাহারের পুলিশ প্রধান আবদুল রাজিক বিস্ফোরণের সময় ওই অতিথিশালায় ছিলেন। তবে তিনি অক্ষত রয়েছেন। এখনো পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী এই বিস্ফোরণ-হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেনি। অন্যদিকে বিবিসি বলছে, হেলমান্দ প্রদেশে গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ব্যবহৃত একটি অতিথিশালায় এক তালেবান জঙ্গির আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্ততপক্ষে সাতজন নিহত হয়েছেন।আফগান কর্মকর্তাদের সূত্রে জানা গেছে, আফগানিস্তানের প্রধান গোয়েন্দা সংস্থার একজন জেলা প্রধানও নিহতদের মধ্যে রয়েছেন। এই হামলায় আহত হয়েছেন অন্ততপক্ষে ছয়জন। এই দুই হামলার পাশাপাশি মঙ্গলবারই দেশটির রাজধানী কাবুলে পার্লামেন্টের কাছে জোড়া আত্মঘাতী  হামলায় ৩০ জনের বেশি মানুষ নিহত এবং ৭০ জনের বেশি মানুষ আহত হন। হামলার পরপরই এর দায় স্বীকার করে তালেবান গোষ্ঠী।

এই ঘটনায় জাতিসংঘের এক বিবৃতিতে মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেন, ‘কূটনৈতিক দূতসহ বেসামরিক নাগরিকদের বিরুদ্ধে নির্বিচার হামলা মানবাধিকার এবং আন্তর্জাতিক মানবিক আইনের লঙ্ঘন। ফলে এটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এ ঘটনায় জাতিসংঘ আফগানিস্তান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের জনগণ ও সরকারের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে। তারা এসব হামলার ঘটনায় জড়িতদের আইনের কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর আহ্বান জানিয়েছে।