শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে লন্ডনের ব্রেন্ট বারার মেয়র
    যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশিদের জন্য সুযোগ তৈরি করেছে ব্রেক্সিট স্বর্ণ প্রবাসীদের পাশে থাকবে সরকার : ইনু


তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে লন্ডনের ব্রেন্ট বারার মেয়র
যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশিদের জন্য সুযোগ তৈরি করেছে ব্রেক্সিট স্বর্ণ প্রবাসীদের পাশে থাকবে সরকার : ইনু


আমাদের অর্থনীতি :
12.01.2017

 

উম্মুল ওয়ারা সুইটি: বাংলাদেশে সফররত লন্ডনের ব্রেন্ট বারা শহরের মেয়র পারভেজ আহমেদ বলেছেন, ব্রেক্সিট নামে পরিচিতি পাওয়া ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বের হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তটি বাংলাদেশিদের জন্য সুফল বয়ে আনবে। বাংলাদেশিদের জন্য এখন অনেক কাজের সুযোগ তৈরি হবে।

গতকাল বুধবার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই মেয়র সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর সঙ্গে বৈঠকে এই কথা বলেন। তিনি প্রবাসীদের সমস্যা সমাধানে দুই দেশের প্রতিনিধিদের সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

বৈঠকে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু প্রবাসীদের ‘স্বর্ণ প্রবাসী’ বলে আখ্যায়িত করে বলেন, আমরা সব সময় তাদের পাশে থাকব।

বৈঠকের পর মেয়র পারভেজ আহেমদ আরও বলেন, ব্রেক্সিটের ফলে এরই মধ্যে লন্ডনে বাংলাদেশিদের অনেক কাজের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। কারণ লন্ডনে দক্ষ জনশক্তির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বিশেষ করে কারি শিল্পে বাংলাদেশিদের চাহিদা ব্যাপক। এই খাতে অপার সম্ভাবনা রয়েছে। এই খাতে প্রচুর দক্ষ লোক দরকার। ইউরোপের লোকেরা কারি শিল্প সম্পর্কে জানে না। একে আরও বিকশিত করা যায়।

পারভেজ আহমেদ বলেন, অভিবাসীদের কারণে ব্রেক্সিট হয়েছেÑ এই কথা ঠিক নয়। এটা মিডিয়া প্রোগান্ডা। ব্রেক্সিট অনেক কারণেই হয়েছে। মিডিয়া শুধু অভিবাসীদের বিষয়টিকে হাইলাইট করেছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য অর্থনৈতিকভাবে বড় অংশীদার। দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন কীভাবে করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

পারভেজ আহমেদ মেয়র হিসেবে তার কাজের বিষয় তুলে ধরে বলেন, জনগণের সেবা করি। বাংলাদেশেও একইভাবে কাজ হয়। কিন্তু বাংলাদেশে আসার পর দেখা যায় কিছু ছোট ছোট সমস্যা আছে। ব্যবসায় বিনিয়োগে এসব ছোট সমস্যা হলেও কখনো কখনো ছোট সমস্যাই বড় আকার ধারণ করে।

বৈঠকে প্রবাসীদের ‘স্বর্ণ প্রবাসী’ আখ্যায়িত করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির উন্নয়নের গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে প্রবাসীরা। তাদের সব সমস্যা সমাধানের আমরা অত্যন্ত আন্তরিক। তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক  উন্নয়নে ব্রিটেনের অবদান আছে। সেখানে অনেক বাংলাদেশি কাজ করছে। সেখানে লোকাল গভর্নমেন্টে এবং পার্লামেন্টেও আমাদের নাগরিকরা আছে। তারা দুই দেশেরই নাগরিক। তাদের সমস্যা আমাদের দেখতে হবে। ইনু বলেন, বাংলাদেশের তিনটি অর্থনৈতিক উন্নয়নের খুঁটি রয়েছে। একটি পোশাক খাত, একটি হচ্ছে কৃষি ও কৃষক, অপরটি প্রবাসী খাত। সুতরাং অর্থনৈতিক উন্নয়নের কারণেই প্রবাসীদের পাশে থাকবে সরকার। সম্পাদনা: সুমন ইসলাম