শনিবার ২২ জুলাই ২০১৭


ইসলামিক রাষ্ট্রগুলোকে পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে এক হওয়ার আহবান রুহানির


আমাদের অর্থনীতি :
16.02.2017

 

কামরুল আহসান : ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি গতকাল বুধবার একদিনের সফরে ওমানে পৌঁছেছেন। এখান থেকে তিনি কুয়েতে যাবেন। ওমানের রাজধানী মাস্কাটা পৌঁছে তিনি ওমানের মহামান্য সুলতান কাবুসের সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন।

মহামান্য সুলতানের সঙ্গে সাক্ষাত করে পারস্য উপসারীয় ইসলামিক দেশগুলোর সঙ্গে ইসলামিক প্রজাতান্ত্রিক দেশগুলোর বন্ধন আরো দৃঢ় করার আহবান জানান ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। তারা আঞ্চলিক সম্পর্ক আরো জোরদারের বিষয়ে কথা বলেন। বিশেষ করে তারা জোর দেন পারস্য সাগরের উপকূলবর্তী ইসলামিক রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে আরব রাষ্ট্রগুলোর নিরাপত্তা ও ভাতৃত্ববন্ধনের দিকে। জানুয়ারির ২৫ তারিখে কুয়েতের পররাষ্ট্র মন্ত্রী শেখ সাবাহ আল-খালিদ তেহরান সফরে গিয়েছিলেন। তখন তিনি হাসান রুহানিকে ইসলামিক রাষ্ট্রগুলোর নিরাপত্তা বিষয়ক জোরদার ও তাদের মধ্যে পারস্পরিক বন্ধন আরো দৃঢ় করার আহবান ব্যক্ত করেন। সেই আহবানে সাড়া দিয়ে হাসান রুহানি এ সফর শুরু করেছেন। হাসান রুহানি বলেছেন, সমস্ত ইসলামিক রাষ্ট্রগুলোকে একই বন্ধনে আসার জন্য সুস্বাগতম। ইরান সব সময়ই ইসলামিক রাষ্ট্রগুলোর নিরাপত্তার ব্যাপারে সহযোগিতা করবে এবং পাশে থাকবে। হাসান রুহানি এ সময় ইরাক, সিরিয়া এবং ইয়েমেনে চলমান বর্তমান সংকট নিয়েও কথা বলেন। তিনি জানান, আরব রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে ইরান সমস্ত রকম দূরত্ব ঘুঁচাতে চায়। বিশ্বের বর্তমান পরিস্থিতিতে ইসলামিক রাষ্ট্রগুলো একসঙ্গে না থাকলে পশ্চিমা শক্তিগুলো তাদের ধ্বংস করে দিবে। হাসান রুহানির সঙ্গে এ সফরে ছিলেন ইরানের উচ্চস্থানীয় ব্যবাসায়িক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। ২০১৩ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পর এই প্রথমবার হাসান রুহানি কুয়েত ও  ওমানে সফরে এলেন। সূত্র : প্রেস টিভি, সম্পাদনা: মাসুম মুনাওয়ার