শনিবার ২৯ এপ্রিল ২০১৭


নির্যাতিত পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা জরুরি


আমাদের অর্থনীতি :
16.02.2017

উম্মুল ওয়ারা সুইটি: যৌন হয়রানিসহ নানাভাবে নির্যাতিত মেয়েদের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারকে চাপ দেওয়ার পাশাপাশি সামাজিকভাবে উদ্যোগ নিতে হবে। বিশেষ করে যেসব পরিবার থেকে মামলা করা হয় তারা বেশি নিরাপত্তা ঝুঁকিতে থাকে। এরমধ্যে যদি আসামি জামিনে বেরিয়ে আসে তাহলেও তো কথাই নেই। নির্যাতিত পরিবারকে চরম মাশুল দিতে হয়। কখনও কখনও এলাকা ছাড়া হতে হয় পুরো পরিবারকে।

বিশিষ্ট নাগরিকরা বলেছেন, নির্যাতিত পরিবারগুলো সব সময়ই নিরাপত্তা নিয়ে আতঙ্কে থাকে। মামলার পরও পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে যায়। তাই এই নিরাপত্তার দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে।

এ ব্যাপারে মানবাধিকার নেত্রী খুশি কবীর বলেন, নির্যাতনের শিকার পরিবারের সদস্যরা মামলা করার পর তাদের নিরাপত্তার দায়িত্ব কেউ নিতে চায় না। অনেক সময় অপরাধীরা এতটাই প্রভাবশালী হয় যে, চাইলেও সামাজিকভাবে নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব হয় না। তাই এসব পরিবারের দায়িত্ব সরকারকেই নেওয়া উচিত।

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা  কে চৌধুরী বলেন, ভিকটিমের পরিবার খুব নাজুক অবস্থায় পড়ে। মামলার কাজে অনেকেই এগিয়ে আসে এবং মামলা পরিচালনায় হয়তো অর্থকড়ি খুব একটা খরচ হয় না। কিন্তু যে হয়রানির শিকার হয় পরিবারগুলো – সেটি মোকাবিলা করা ভয়ানক হয়ে উঠে। কারণ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা গেছে অপরাধীরা বেশি প্রভাবশালী হয়। আর মামলা তুলতে চাপ আসতে থাকে। এসব কারণেই পরিবারগুলো নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়ে। নির্যাতিতদের নিরাপত্তা দেওয়া খুব জরুরি।