মঙ্গলবার ২৩ মে ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » আজ জার্মান যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
    মেরকেল-হাসিনা বৈঠকে থাকছে রোহিঙ্গা বিষয়ে আলোচনা


আজ জার্মান যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
মেরকেল-হাসিনা বৈঠকে থাকছে রোহিঙ্গা বিষয়ে আলোচনা


আমাদের অর্থনীতি :
16.02.2017

উম্মুল ওয়ারা সুইটি: জলবায়ু নিরাপত্তা বিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে আজ জার্মানির উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী ১৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেলের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন। ওই বৈঠকে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে জার্মানের সমর্থন ও সক্রিয় ভূমিকা চাইবে প্রধানমন্ত্রী। গতকাল বুধবার প্রধানমন্ত্রীর এই সফর সম্পর্কে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলীও মেরকেলের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে রোহিঙ্গা বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এবারই প্রথম এ সম্মেলনের আমন্ত্রণ পেয়েছে।  আগামী ১৭-১৯ ফেব্রুয়ারি মিউনিখে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। মেরকেলের সঙ্গে বৈঠকে বাণিজ্য, বিনিয়োগ, জলবায়ু পরিবর্তন ও অভিবাসনসহ দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হবে এবং বৈঠক শেষে যৌথ ঘোষণাপত্র স্বাক্ষর হতে পারে বলে মন্ত্রী জানান।

মাহমুদ আলী জানান, মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে ১৮ ফেব্রুয়ারি ‘ক্লাইমেট অ্যান্ড হিউম্যান সিকিউরিটি’ শীর্ষক একটি অধিবেশনে আলোচনায় অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী। এই অধিবেশনে ফিনল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট ও নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী অংশ নেবেন। মন্ত্রী জানান, শেখ হাসিনা বিশ্ব নেতাদের সামনে রোহিঙ্গা সমস্যার বিষয়টি তুলে ধরবেন। প্রধানমন্ত্রী বলবেন, রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের মানুষ। তাই এই সমস্যার সমাধান মিয়ারমারকেই করার চাপ দিতে হবে।

নোয়াখালীর ঠেঙ্গার চরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর বিষয়ে মাহমুদ আলী জানান, সব সুবিধা নিশ্চিত করেই রোহিঙ্গাদের ঠেঙ্গার চরে পাঠানো হবে। তাদের স্থানান্তরের আগে বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতদের চর পরিদর্শন করানো হবে।

মিউনিখ নিরাপত্তাবিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনে শতাধিক দেশের প্রতিনিধি  যোগ দেবেন। জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস, ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ক, ন্যাটোর মহাসচিব জেন্স স্টোলেনবার্গ, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট পেট্টো প্রোসেঙ্কো, আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদ আশরাফ ঘানি, নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী ইরিনা সোলবার্গ, হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টরন ওরবান, ইরাকের প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবাদিসহ অন্যরা অংশ নেবেন।