মঙ্গলবার ২৭ জুন ২০১৭


হাবিপ্রবিতে ট্রিপল -ই দিবস উদযাপিত


আমাদের অর্থনীতি :
17.02.2017

মো. ইউসুফ আলী, দিনাজপুর : হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আই ট্রিপল ই (ইনস্টিটিউট অব ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং) হাবিপ্রবি স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ এর উদ্বোধন এবং ট্রিপল ই দিবস উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে  গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম এর নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালি শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম-২ এ এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম।

ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান মো. জামিল সুলতান এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ এর ডীন মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন।পানি নেই তিস্তায়, বেকার ১০ হাজার জেলে

নূর আলম সিদ্দিকী,নীলফামারী: ভোরের আলো  ফোটার আগেই তারা জাল আর খলই নিয়ে ছুটে যায় নদীতে। দিনভর চেষ্টা করেও জালে উঠছে না  মাছ। তবুও থেমে নেই মাছ ধরার চেষ্টা।এ পেশার সঙ্গে জড়িত ১০হাজার পরিবার আজ হয়ে পড়েছে বেকার। এতে প্রকৃতি ও জীব বৈচিত্র পড়েছে হুমকির মুখে।জেলেরা হতাশ হয়ে জীবন-জীবিকার একমাত্র বাহন অনেক সাধের নৌকাকেও ভেঙে ব্যবহার করছেন জ্বালানি হিসেবে। ভারত তিস্তা নদীর পানি একতরফাভাবে প্রত্যাহার করে নেয়ায় পানিশূন্য হয়ে পড়েছে এক সময়ের প্রমত্তা তিস্তা। বেকার হয়ে পড়েছে তিস্তা নদীর ওপর নির্ভরশীল ১০হাজার জেলে। নদীতে যেটুকু পানি জমে আছে দিনভর প্রাণপন চেষ্টা করেও মিলছে না মাছ। ধার দেনা করেও চলছে না তাদের সংসার। এভাবেই দিন কাটছে অনাহারে-অর্ধাহারে তিস্তা পারের জীবন। জেলে রহিম মিয়া বলেন, ‘তিস্তা ব্যারাজের উজানে ও ভাটিতে কিছু পানি জমে থাকলেও এতে পাওয়া যাচ্ছে না মাছ।’ নদীতে পানি নেই,মাছ নেই পেটেও ভাত নেই; নেই বিকল্প পেশা।বাপদাদার এ পেশা ছাড়তে চাইলেও ছাড়া যায়না এভাবেই চরম দুর্বিসহ জীবন যাপন করছে জেলেরা। তিস্তায় পানি প্রবাহ না থাকার কথা স্বীকার করলেও পরিবেশের ভারসাম্য বিনষ্ট হচ্ছে না বলে দাবি করলেন পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া ডিভিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান। তিস্তা নদীর ওপর নির্ভরশীল ১০হাজার জেলেকে বাঁচানোর পাশাপাশি পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় পানি চুক্তির কোন বিকল্প নেই বলে মনে করছেন এই এলাকার মানুষ। সম্পাদনা: মুরাদ হাসান