বুধবার ২৯ মার্চ ২০১৭


চাকরি দেয়ার কথা বলে প্রতারণা, নারীসহ আটক ৩


আমাদের অর্থনীতি :
17.02.2017

সুজন কৈরী : ভুয়া নিয়োগপত্রের মাধ্যমে ব্যাংকে চাকুরি দেয়ার কথা বলে প্রতরাণার মাধ্যমে টাকা আত্মসাৎকারী চক্রের ৩ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-৩। আটককৃতরা হলো রেজাউল হক, ফয়েজ আহম্মেদ ও সুমি। গত ১৩ ও ১৪ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর শাহাজাহানপুরের মমিনবাগ এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতদের কাছ থেকে ৫০টি বিভিন্ন ব্যক্তির জীবন বৃত্তান্ত, পাঁচটি সীল, ৬০টি বিভিন্ন ব্যাংকের চেক বই, ৭টি মোবাইল ফোন, পেনড্রাইভ, কম্পিউটার মনিটর ও একটি সিপিসিইউ উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক লে.কর্নেল তুহিন মোহাম্মদ মাসুদ জানান, আসমা আক্তার নামে এক ভুক্তভোগীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে সাধারণ মানুষের সঙ্গে চাকরী দেওয়ার কথা বলে প্রতারণা করে আসছে। আটক সুমি ভুক্তভোগী আসমাকে ব্যাংকে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বলে, রুপালী ব্যাংকের উর্ধ্বতন অফিসারের সাথে তার ভাল সর্ম্পক রয়েছে। ৬ লাখ টাকা দিলে উর্ধ্বতন অফিসারদের মাধ্যমে তাকে ওই ব্যাংকে চাকরি নিয়ে দিবেন। প্রস্তাবে আসমা ও তার স্বামীর বন্ধু হেলাল উদ্দিন রাজি হন।

চক্রের সদস্যরা তাদেরকে নিয়োগপত্রের অনুলিপি প্রদান করে। তারা নিয়োগপত্রের সত্যতা যাচাই করতে রুপালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে গেলে ওই নিয়োগপত্র ভুয়া বলে প্রমাণিত হয়। পরে আসমা ও হেলাল চক্রের সদস্য সুমিসহ অন্যদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা নানা রকম তালবাহনা করে এবং বিষয়টি প্রকাশ না করার জন্য বিভিন্ন ধরণের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। দেয়া হয় প্রাণ নাশের হুমকিও। পরে অভিযোগ পেয়ে অভিযান চালিয়ে চক্রের তিন সদস্যকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত মর্শিদ আলম নামে  আরেকজন পলাতক রয়েছে। তাকে ধরতে অভিযান চলছে বলে জানান তিনি। সম্পাদনা: এনামুল হক