সোমবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৭


সংসার ভাঙ্গার দায় নারীকেই নিতে হয়


আমাদের অর্থনীতি :
17.02.2017

উম্মুল ওয়ারা সুইটি: বিয়ের পর মেয়েরা অনেক কষ্ট সহ্য করেও সংসার টিকিয়ে রাখতে চায়। শ্বশুরবাড়ির লোকজনের অত্যাচার, আবার স্বামীর নির্যাতন মুখ বুজে মেনে নেয়। কারণ বেশিরভাগ সময় দেখা যায় মেয়ের পরিবার চাপ দেয় সবকিছু মেনে নিতে।

এমনকি স্বামী গায়ে হাত তুললেও দীর্ঘ সময় বিষয়টি গোপন রাখা হয়।

এভাবে চলতে চলতে শেষ সময় এসে যদি মেয়েটি অসহায় হয়ে পড়ে এবং মুক্ত হতে চায়। তখন শুরু হয় সামাজিক চাপ। সংসার ধরে রাখার সব দায় যেন মেয়েদেরই। কিন্তু ছেলেটিকে সেই তুলনায় কোনো চাপ নিতে হয় না। আর যদি তাদের ঘরে সন্তান থাকে তাহলে ওই বাচ্চাদের ঘিরে অভিনব সব যুক্তি। বাচ্চাদের কথা ভাবো। ওদের মুখেরদিকে তাকিয়ে সব মেনে নাও।

সবকিছুর পর নারী যখন শেষ পর্যন্ত পরাস্ত হয়, তখন তার উপর নেমে আসে আরেক বিমর্ষ জীবন।

স্বামীর ঘর ভেঙ্গে আসার পর তার কোনো মূল্য নেই যেন। আদরের ভাই বোনরা যেন কত অচেনা। পরিবারের কাছেও সে যেন দূরের কেউ।

বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির নির্বাহী পরিচালক সালমা আলী আরও বলেন, সংসার টিকিয়ে রাখার সব দায় যেন মেয়েদেরই। সবকিছু মেনে নিয়ে সংসার তাকেই টিকিয়ে রাখতে হবে। আমরা আগের তুলনায় অনেক এগিয়েছি। তবে বিয়ে বিচ্ছেদের পর যদি মেয়েরা আর্থিকভাবে সামর্থ্যবান না থাকে, তাহলে তার দুর্ভোগ থেকেই যায়। সব দায় মাথায় নিয়ে জীবন কাটিয়ে দেয় মেয়েরা।