সোমবার ১ মে ২০১৭


মুসলিম বিশ্বের আদর্শ বাতিঘর জামিয়া উম্মুল কোরা


আমাদের অর্থনীতি :
21.04.2017

 

মুনশি মুহাম্মদ উবাইদুল্লা

গল্পটি যুগের স্বাক্ষী হয়ে দাঁড়ানো পবিত্র বাইতুল্লাহ শরিফের কোলঘেঁষে অবস্থিত একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের। ১৩৬৯ হিজরি সালে পবিত্র মক্কা নগরীতে বাদশাহ খালিদ বিন আবদুল আজিজ যাকে সৌদিআরবের প্রথম সমৃদ্ধ ও আধুনিক বিশ্ববিদ্যালয়ের রূপ দেন। ইসলামের নানা বিষয়ে উচ্চশিক্ষার পাশাপাশি যেখানে রয়েছে জ্ঞানবিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় উন্নত শিক্ষা অর্জনের সুযোগ। পবিত্র মক্কা নগরী থেকে ১৩/১৪ কিলোমিটার পূবে জাবালে রহমতের পাদদেশে অবস্থিত ঐতিহাসিক আরাফার ময়দান। যার দক্ষিণ পাশঘেঁষে মক্কা হাদাহ তায়েফ রিংরোড। এই সড়কটির দক্ষিণেই আবেদি উপত্যকায় মক্কার ঐতিহাসিক উম্মুল কোরা বিশ্ববিদ্যালয় দাঁড়িয়ে রয়েছে আরবের সভ্যতা, সংস্কৃতির শেকড় আঁকড়ে।

ধর্মীয়, ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিকভাবে অন্যরকম মর্যাদা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। অধুনা মক্কায়, এমনকি সমগ্র ইসলামিবিশ্বের জন্য একটি অনন্য বাতিঘর হিসেবে পরিচিত জামিয়াটি। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে একটি আধুনিক ও সমৃদ্ধশীল রাষ্ট্র নির্মাণের স্বপ্ন দেখানোর পেছনে এর অবদান অনস্বীকার্য। এছাড়াও ইসলামি প্রগতি ও সাংস্কৃতিক নানাদিকে বড় কাজ দেখিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়টি।  শরিয়াশিক্ষাকে এর অভ্যন্তরীণ নীতিভিত্তিক করে রেকর্ড গড়েছে অনন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের।

আন্তর্জাতিক রঙ্গভূমির ওপর চিত্তাকর্ষক রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক মর্যাদা অর্জন করে বিচক্ষণতার পরিচয় দিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির ধারাবাহিকভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা খ্যাতির শীর্ষে এনে দিচ্ছে এখনও বছরের পর বছর।  গোটা মক্কা, তায়েফ নগরীকে উন্নয়নশীল স্থান হিসেবে গড়তে যথেষ্ট কাজ আঞ্জাম দিয়েছে। একটি সুষম নীতি থেকে নির্গমনের এই পরিকল্পনা মৌলিক অবকাঠামো নির্মাণের পাশাপাশি ক্ষমতা নির্মাণ এবং মানবসম্পদ উন্নয়নের ওপর বিশেষ জোর দিয়েছে। ১৯২৫ খ্রিস্টাব্দে মক্কার সঙ্গে হেজাজ সংযুক্তির মাধ্যমে রাজ্যের একীভূত হয়। ফলে প্রতিষ্ঠানটির অসাধারণ প্রচেষ্টায় মেধা আন্দোলনে শিক্ষা অনুমোদন এবং ছাত্রদের জন্য নানাধরনের সুবিধে দিয়ে এসেছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। অত্যন্ত যোগ্যতাসম্পন্ন সৌদি ও প্রবাসী শিক্ষাবিদদের মাধ্যমে এর প্রথম শিক্ষাকার্যক্রম চালু হয়েছিলো স্কুল কিংডমের মধ্য দিয়ে। ১৯২৬ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত মক্কার বৈজ্ঞানিক ইন্সটিটিউট বৃত্তির জন্য একে আওতাভুক্ত করে।  শহর-বন্দরের অন্য অনেক স্কুল ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ১৯৪৮ খ্রিস্টাব্দে একে তায়েফের দারে আত-তাওহিদ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অনুগামী করা হয়। ১৯৪৯ খ্রিস্টাব্দে বাদশাহ আবদুল আজিজ মক্কায় শরিয়া কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। তার আদেশে উম্মুল কোরা বিশ্ববিদ্যালয়টি রাজ্যের প্রথম কলেজ হিসেবে রূপ নেয়। সত্য ও বাস্তব হলো, সেই থেকে এটি এখনও সৌদিআরবের বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের মা কলেজ হিসেবে সুষ্ঠুভাবে উন্নত কারিকুলামে শিক্ষাগত বিষয়গুলি আঞ্জাম দিয়ে যাচ্ছে। সবচেয়ে বিশিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে এখনও একে গণ্য করা হয়। যদিও এটি অতি সম্প্রতি পুনর্গঠিত, তবু উম্মুল কোরাকে সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গণ্য করার কারণ হলো, এর উন্নত অবস্থান এবং চিত্তাকর্ষক সত্যতা রয়েছে।  বিশ্ববিদ্যালয়টি আধুনিক বিজ্ঞান বিভাগ ছাড়াও শরিয়াশিক্ষা ও ইসলামিক স্টাডিজে প্রশংসনীয় খ্যাতি কুড়িয়েছে ইতোমধ্যেই।  লেখক : উচ্চতর হাদিস বিভাগ, দারুল উলুম দেওবন্দ, ভারত।