বুধবার ২৩ অগাস্ট ২০১৭


গোপালগঞ্জ শহরে তীব্র পানি সংকট ভোগান্তিতে লক্ষাধিক মানুষ


আমাদের অর্থনীতি :
21.04.2017

 

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জ পৌর এলাকায় বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। অপ্রতুল পানি সরবরাহেও নাকাল হচ্ছে লক্ষাধিক মানুষ।

গোপালগঞ্জ শহরের পুরাতন বাজার রোডের বাসিন্দা অভিজিৎ পাল, বলেন, কোনো দিন সামান্য পানি পাই। আবার কোনো দিন পানি পাই না। পানির কষ্টে পরিবার-পরিজন নিয়ে অসহনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। মিয়াপাড়ার এলাকার কামাল হোসেন বলেন, সরবরাহকৃত পানি প্রয়োজনের তুলনায় একেবারেই অপ্রতুল। এ পানি পানের অযোগ্য। এ দিয়ে গোসল, কাপড়, থালা-বাটি ধোয়া যায় মাত্র। পানি কিনে খেতে মাসে দেড় থেকে দু’হাজার টাকা ব্যয় করতে হ”েছ। এছাড়া লবণাক্ত পানি সরবরাহ করায় অনেকে পেটের পীড়াসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

গোপালগঞ্জ পৌরসভার পানি সরবরাহের বর্তমান পরিস্থিতি উঠে আসে গোপালগঞ্জ পৌরসভার পানি সরবরাহ বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক জাকারিয়া আলমের কথায়। তিনি জানান, এ শহরে দিনে এক লাখ গ্যালন পানির চাহিদা রয়েছে। আর সরবরাহ করা হচ্ছে ৪০ হাজার গ্যালন। পানি সরবরাহ ব্যবস্থার ১২টি ৮০ হর্স ও ৬০ হর্স পাওয়ার পানি সরবরাহ সাব-মারসেবল মোটরের মধ্যে ৮টি বিকল। শোধনাগারে ঠিকভাবে পানি শোধন হচ্ছে না বলে পৌরবাসীকে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা যাচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, ২০০২ সালে ৮ কোটি টাকা ব্যায়ে পৌরবাসীকে সুপেয় বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের জন্য মধুমতি নদীর সাথে সংযোগ করে সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট চালু করা হয়। ওই সময় ৫ হাজার গ্রাহকের পানি সরবরাহের চিন্তা করে প্লান্ট ¯’াপন হয়। সে সময় গ্রাহক ছিল মাত্র ২ হাজার ৩শ। বর্তমানে গ্রাহক সংখ্যা বেড়ে সাড়ে ৬ হাজারে দাঁড়িয়েছে। প্রতিদিন নতুন নতুন বাড়ি ঘর নির্মাণ হচ্ছে। পৌর এলাকায় মানুষের বসবাস কয়েক গুণ বেড়ে গেছে। সম্পাদনা: মুরাদ হাসান