বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭


‘পাকিস্তান ভারতকেও হারাবে, শিরোপাও জিতবে’


আমাদের অর্থনীতি :
20.05.2017

স্পোর্টস ডেস্ক : আসন্ন আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারতকে হারিয়ে দেওয়ার প্রত্যাশার কথাটা এর আগেও একবার ব্যক্ত করেছিলেন ইনজামাম-উল-হক। পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচক এবার আরও দৃঢ় কণ্ঠে বললেন ৪ জুন এজবাস্টনে ভারতকে হারিয়ে দেবে পাকিস্তান। শুধু তাই নয়, পাকিস্তানের সাবেক এই অধিনায়কের বিশ্বাস, এবারের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে পাকিস্তান প্রতিটা ম্যাচই জিতে ঘরে তুলবে শিরোপাও। আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগের সাত আসরের মধ্যে একবারও শিরোপার দেখা পায়নি পাকিস্তান। ইনজির আশা, এবার ইংল্যান্ডের মাটিতে পাকিস্তানের সেই শিরোপা আক্ষেপটা ঠিকই ঘুচিয়ে ফেলবে সরফরাজ আহমেদের দল।

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই ক্রিকেটের ‘এল ক্লাসিকো’। দুই বৈরি প্রতিবেশী মুখোমুখি হওয়া মানেই স্নায়ুক্ষয়ী লড়াই। কিন্তু প্রসঙ্গ যখন বিশ্বকাপ, দুই দলের সেই স্নায়ুক্ষয়ী লড়াইটা বড় বেশি একপেশে। বিশ্বকাপে যে ভারতকে কখনোই হারাতে পারেনি পাকিস্তান। ওয়ানডে বিশ্বকাপে তো বটেই; পাকিস্তান ভারতকে কখনো হারাতে পারেনি টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপেও। ওয়ানডে বিশ্বকাপে ৬ বারের দেখায় ৬ বারই হেরেছে পাকিস্তান। টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে ৫ বারের দেখায় ৪ বারই হার, অন্য ম্যাচটি টাই। যদিও সেই টাই নাটকের পর ‘বোল্ড আউট’ নাটকে ঠিকই হার মানে পাকিস্তান! তবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে দুই দলের মুখোমুখি সাক্ষাতে পাকিস্তানই এগিয়ে। মোট ৩ বারের দেখায় দুই বার জিতেছে পাকিস্তান। একবার ভারত।

পাকিস্তানের সেই দুই জয়ের একটি এই এজবাস্টনেই, ২০০৪ সালের আসরে। এই ইনজামাম-উল-হকের নেতৃত্বেই। ২০০৪ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর এজবাস্টনের সেই ম্যাচে রানা নাভেদ ও শোয়েব আখতারের তোপের মুখে মাত্র ২০০ রানেই গুটিয়ে যায় সৌরভ গাঙ্গুলীর ভারত। জবাবে ইনজামামের পাকিস্তান জিতেছিল বটে; তবে ২০১ রানের লক্ষ্য তাড়ায় তাদেরও ঘাম ছুটে যায়। পাকিস্তান ৩ উইকেটে জিতেছিল মাত্র ৪ বল বাকি থাকতে। তবে আবার যখন সেই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সেই এজবাস্টনেই মুখোমুখি হচ্ছে দুই দল, পাকিস্তানকে ১৩ বছর আগের সেই জয় অনুপ্রেরণা যোগাবেই। তা ছাড়া সেই জয়ের অন্যতম সারথি ইনজামাম তো এবারও দলের সঙ্গেই থাকবেন। অধিনায়কের পরিবর্তে প্রধান নির্বাচকের ভূমিকায়।

শুধু ওই জয়ই নয়, ইনজামামকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা জয়ের জন্য আশাবাদী করে তুলছে সদ্য শেষ হওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দলের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সও। টি-টুয়েন্টি, ওয়ানডে, টেস্ট- ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন সংস্করণের সিরিজেই জিতেছে পাকিস্তান। ২-১ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজ জিতে মিসবাহ-উল হকের পাকিস্তান তো গড়েছে ক্যারিবিয়ানের মাটিতে প্রথম বারের মতো টেস্ট সিরিজ জয়ের ইতিহাসই। সফল ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর শেষে পাকিস্তান দল এরই মধ্যে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে ইংল্যান্ডে পৌঁছে গেছে।

সব মিলিয়ে ৪৭ বছর বয়সী ইনজি দলকে নিয়ে খুবই আশাবাদী, ‘আমরা শুধু ভারতকে হারানোর জন্যই ইংল্যান্ডে যাইনি। সেখানে আমাদের প্রধান লক্ষ্য থাকবে চ্যাম্পিয়নশিপ জেতা।’ ২০০৪ সালে ভারতকে হারানোর কথা মনে করিয়ে দিয়ে বলেছেন, ‘আশা করি আমরা আবারও জিততে পারব।’ ইন্টারনেট