বুধবার ২৩ অগাস্ট ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » অফবিট » দিল্লিতে সারপ্রাইজ হিসেবে স্ত্রীকে পার্কে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা


দিল্লিতে সারপ্রাইজ হিসেবে স্ত্রীকে পার্কে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা


আমাদের অর্থনীতি :
19.06.2017

আবু মুসা: স্বামীর নিকট থেকে স্ত্রী অবাক করা কিছু পাওয়ার আশা করলেও স্বামী বিস্মিত করলো সবাইকে। গত শুক্রবার দিল্লীর বনটা পার্কে ২২ বছর বয়সী কোমলকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তার স্বামী মনোজ কুমার। পুলিশ সূত্রে আরো জানা যায়, এর কয়েক ঘন্টার মধ্যেই আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ।  শুক্রবার বিকালে বাবার বাড়িতে থাকা কোমলের সাথে দেখা করতে যায় মনোজ। সেখানে গিয়ে স্ত্রীকে বলেন, অবাক করার মত উপহার আছে তার কাছে। এই বলে সে কোমলকে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকটবর্তী পার্কে নিয়ে যায় এবং চোখ বন্ধ করতে বলে, এরপরই তার দিয়ে শ্বাসরোধ করে কোমলকে হত্যা করে মনোজ।

এরপর স্ত্রীর লাশ পার্কে রেখে তার এক বন্ধুকে ঘটনাটি জানায় মনোজ। তার বন্ধু পুলিশকে ঘটনাটি জানালে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। পুলিশ জানায়, পরে তাকে কোমলের শরীর চিহ্নিত করার জন্যে পার্কে নিয়ে যায়।  দক্ষিণ পুলিশের সহকারি কমিশনার যতিন নারওয়াল বলেন, মদ্যপ অবস্থায় থাকার কারণে মনোজ কোন জায়গায় হত্যা করেছিল, তা সনাক্ত করতে পারে নাই। যদিও ২টা পুলিশ টিমের কল্যাণে ১২ ঘন্টায় মরদেহ উদ্বার করা হয়।

গোরগাও বারে কাজ করার সময় মনোজ ও কোমলের প্রথম সাক্ষাৎ হয়। ২০১৫ সালে তাদের দুজনের বিয়ে হয়, কিন্তু বিয়ের ৬ মাসের মধ্যেই ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বিষয় নিয়ে ভিন্নতা লক্ষ্য করে তারা। ঝগড়া বিবাদ হত, মনোজের অনিচ্ছাসত্তেও কোমল দিল্লিতে তার বাবার বাড়িতে যাওয়ার কথা বললে।

পুলিশ আরো জানায়, কোমলের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত বৈবাহিক সর্ম্পক সহ পরকীয়ার অভিযোগ তুলে মনোজ। নিষেধে কাজ না হওয়ায় কোমলকে হত্যার পরিকল্পনা করে মনোজ। স্ত্রীকে হত্যার পর শহর ছাড়ার পরিকল্পনা ছিল মনোজের। তার বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং কোমলের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।   এনডিটিভি