শনিবার ১৯ অগাস্ট ২০১৭


বাংলাদেশের অর্থনীতি ৩৩ বছরেই কানাডার সমপর্যায়ে যাবে


আমাদের অর্থনীতি :
13.08.2017

 

আরিফ আহমেদ : বিশ্বটাকে আমরা এখন যেরকম দেখি, ২০৫০ সালের মধ্যে সেটিতে নাটকীয় পরিবর্তন হতে যাচ্ছে। পরিবর্তন ঘটবে বিশ্ব অর্থনীতিতেও। আর সে পরিবর্তনের অন্যতম সঙ্গী হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। শুধু বাংলাদেশই নয়, বিশ্ব অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি হতে যাচ্ছে এশিয়া। প্রভাবশালী জরিপ প্রতিষ্ঠার পিডব্লিউসির করা এক প্রতিবেদনে আগামী ৩৩ বছরের মধ্যে বিশ্ব অর্থনীতিতে যেসব দেশ নেতৃস্থানীয় পর্যায়ে চলে আসবে, তাদের বিষয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়েছে।

‘দ্য লং ভিউ : হাই উইল দ্য গ্লোবাল ইকোনমিক অর্ডার চেঞ্জ বাই ২০৫০’ শিরোনামের এ প্রতিবেদনে ৩২টি দেশের তালিকা করা হয়েছে, বিশ্ব অর্থনীতি যাদের কাঁধের উপর ভর করে চলতে যাচ্ছে। অর্থনীতির চালিকাশক্তি ও জীবন ধারণের মানের উপর নির্ভর করে দেশগুলোর এ তালিকা করা হয়েছে। তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান বেশ জোরালো হিসেবেই দেখানো হয়েছে এবং বলা হয়েছে, এই সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ অর্থনীতিতে মালয়েশিয়াকেও ছাড়িয়ে যাবে এবং বাংলাদেশ ও কানাডার অর্থনীতি হবে সমপর্যায়ের। ২০৫০ সালের মধ্যে শুধু যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া জাপান কিংবা জার্মানির মতো বর্তমান বিশ্ব অর্থনীতির অনেক রাঘব বোয়াল তাদের অবস্থান ধরে রাখতে পারবে না বলে প্রতিবেদনে ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়েছে। নিচে পিডব্লিউসির তালিকায় থাকা ৩২টি দেশের নাম উল্লেখ করা হলো এবং তাদের সম্ভাব্য অর্থনীতি মার্কিন ডলারে নিরুপণ করা হলো-

৩২. নেদারল্যান্ডস- ১.৪৯৬ ট্রিলিয়ন ডলার, ৩১. কলাম্বিয়া- ২.০৭৪ ট্রিলিয়ন, ৩০. পোল্যান্ড- ২.১০৩ ট্রিলিয়ন, ২৯. আর্জেন্টিনা- ২.৩৬৫ ট্রিলিয়ন, ২৮. অস্ট্রেলিয়া- ২.৫৬৪ ট্রিলিয়ন, ২৭. দক্ষিণ আফ্রিকা- ২.৫৭০ ট্রিলিয়ন, ২৬. স্পেন- ২.৭৩২ ট্রিলিয়ন, ২৫. থাইল্যান্ড- ২.৭৮২ ট্রিলিয়ন, ২৪. মালয়েশিয়া- ২.৮১৫ ট্রিলিয়ন, ২৩. বাংলাদেশ- ৩.০৫৪ ট্রিলিয়ন, ২২. কানাডা- ৩.১ ট্রিলিয়ন, ২১. ইটালি- ৩.১১৫ ট্রিলিয়ন, ২০. ভিয়েতনাম- ৩.১৭৭ ট্রিলিয়ন, ১৯. ফিলিপিনস- ৩.৩৩৪ ট্রিলিয়ন, ১৮. দক্ষিণ কোরিয়া- ৩.৫৩৯ ট্রিলিয়ন, ১৭. ইরান- ৩.৯০০ ট্রিলিয়ন, ১৬. পাকিস্তান- ৪.২৩৬ ট্রিলিয়ন, ১৫. মিসর- ৪.৩৩৩ ট্রিলিয়ন, ১৪. নাইজেরিয়া- ৪.৩৪৮ ট্রিলিয়ন, ১৩. সৌদি আরব- ৪.৬৯৪ ট্রিলিয়ন, ১২. ফ্রান্স- ৪.৭০৫ ট্রিলিয়ন, ১১. তুরস্ক- ৫.১৮৪ ট্রিলিয়ন, ১০. যুক্তরাজ্য- ৫.৩৬৯ ট্রিলিয়ন, ৯. জার্মানি- ৬.১৩৮ ট্রিলিয়ন, ৮. জাপান- ৬.৭৭৯ ট্রিলিয়ন, ৭. মেক্সিকো- ৬.৮৬৩ ট্রিলিয়ন, ৬. রাশিয়া- ৭.১৩১ ট্রিলিয়ন, ৫. ব্রাজিল- ৭.৫৪০ ট্রিলিয়ন, ৪. ইন্দোনেশিয়া- ১০.৫০২ ট্রিলিয়ন, ৩. যুক্তরাষ্ট্র- ৩৪.১০২ ট্রিলিয়ন, ২. ভারত- ৪৪.১২৮ ট্রিলিয়ন, ১. চীন- ৫৮.৪৪৯ ট্রিলিয়ন। সূত্র : দ্য ইনডিপেনডেন্ট, সম্পাদনা : গিয়াস উদ্দিন আহমেদ