বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭


হারিকেন ‘ইরমায়’ ফ্লোরিডার ৯০ শতাংশ বাড়ি-ঘর ধ্বংস


আমাদের অর্থনীতি :
14.09.2017

বিডিপ্রতিদিন : যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় আঘাত হানা হারিকেন ইরমায় ৯০ শতাংশ বাড়ি-ঘর ধ্বংস হয়েছে। দেশটির ফেডারেল ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট এজেন্সি প্রশাসক ব্রুক লং জানান, ফ্লোরিডার দ্বীপগুলোতে কমপক্ষে ২৫ শতাংশ ঘরবাড়ি পুরোপুরি ধ্বংস এবং ৬৫ শতাংশ ঘরবাড়ি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

দ্বীপগুলোর প্রতিটি ঘরবাড়িই কমবেশি ক্ষতির শিকার হয়েছে।   এছাড়া ইরমা আঘাত হানার পর প্রায় ১ লাখ অধিবাসী ফ্লোরিডার বিভিন্ন দ্বীপ এবং মিয়ামিতে ফিরতে শুরু করেছে। যদিও কতৃর্পক্ষ তাদের সতর্ক করে দিয়ে জানিয়েছে, আক্রান্ত এলাকাগুলোর অধিকাংশ গ্যাস স্টেশন বন্ধ থাকার পাশাপাশি সেখানে মোবাইল ফোনের সিগন্যাল পাওয়া যাবে না।

মঙ্গলবার সকাল থেকে লারগো, লাভেরনিয়ের এবং ইসলামোরাডা দ্বীপের কিছু বাসিন্দাদের তাদের ঘর বাড়িতে ফিরে যাওয়ার অনুমোদন দেয়া হয়।

ঝড়ের প্রভাবে নো ফ্লোরিডা, নর্থ ক্যারোলিনা, সাউথ ক্যারোলিনা এবং এলাবামাতে ৬৯ লাখ মানুষ বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় আছে। অধিকাংশ মোবাইল ঘরই ধ্বংস হয়ে এদিক সেদিক পড়ে আছে, রাস্তায় পড়ে আছে নৌকা এবং অন্যান্য জলযানসহ আবর্জনার স্তুপ। ঝড় থেমে গেলেও এখনো সব এলাকাতে স্থানীয় বাসিন্দা এবং ব্যবসায় মালিকদের সবাইকে তাদের ঘরবাড়ি বা কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। এ প্রসঙ্গে মোনরোই প্রদেশ কর্তৃপক্ষ দুর্গত এলাকাগুলোতে সীমিত পরিষেবার পাশাপাশি পানি ও বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্নতার কথা বলেছেন।

ফ্লোরিডার মেয়র রিক স্কট জানান, এমন অনেক জায়গা আছে যেখানে আমরা কখনোই ভাবিনি বন্যা হতে পারে কিন্তু এবার তা হয়েছে।

গত রোববার আঘাত হানা ক্যাটাগরি ৪ মাত্রার ইরমা ফ্লোরিডাতে ১২ জনসহ কমপক্ষে ২২ জনের প্রাণহানি ঘটায়। ফ্লোরিডাতে আঘাত হানার পূর্বে ইরমা তার হিংস্র থাবা বসায় ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে; যেখানে নিহত হয় কমপক্ষে ৪০ জন।

অন্যদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরমার ক্ষতি দেখতে বৃহম্পতিবার ফ্লোরিডাতে যাওয়ার কথা রয়েছে। সম্পাদনা : ইমরুল শাহেদ