বৃহস্পতিবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭


হত্যাকারীদের ঘৃণা জানাতে হবে সারাবিশ্বকেই


আমাদের অর্থনীতি :
19.09.2017

হাশেম খান

শুধু শিল্পী হিসেবে নয়, একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে বলছিÑ মিয়ানমার যা করেছে তা সারাবিশ্ব দেখছে। সন্ত্রাস দমনের নামে লাখ লাখ মানুষকে তারা গৃহহীন করছে, দেশ ছাড়া করছে। এজন্য সারা বিশ্ব তাদের নিন্দা জ্ঞাপন করছে। জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী অসাধারণভাবে সমস্যাটা তুলে ধরবেন বলে আশা করছি। মিয়ানমারের রাজনীতি যাই হোক না কেন, মানুষগুলোকে এভাবে হত্যা করতে পারে না। এটা দ্রুত অবসানের জন্য সারাবিশ্বকেই এক হওয়া উচিত।

এই উদ্বাস্তু সমস্যা আরও অনেক আছে। আমরা পাকিস্তান আমলে ১৯৭১ সালেও আমাদের লাখ লাখ মানুষকে হত্যা করেছে পাকিস্তানিরা। মিয়ানমারের চলমান বর্বরতাও একই ধরনের। এই বর্বরতা আমরা যত  দ্রুত যত বেশি পৃথিবী থেকে জানাতে পারব, ততই মঙ্গল। বিশ্বে যদি শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে চাই তাহলে মানুষ হত্যাকারীদের প্রতি ঘৃনা জানাতে হবে। শাস্তি দিতে হবে। আমাদের দেশ তাদের জায়গা দিয়েছে, দেশের প্রধানমন্ত্রীর সাথে সবাই আছে। কেউ বলেনি যে তাদেরকে জায়গা দিও না। রোহিঙ্গারা দেশ ছাড়তে বাধ্য হচ্ছে তাদেরকে হত্যা করা হচ্ছে। তাদের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে। একই জিনিস করেছে পাকিস্তানিরা। একই কাজ করছে মিয়ানমারেরা। তারা চায় না রাখাইনরা বাঁচুক। এ বিষয়ে বিশ্ববিবেককে জাগ্রত করা উচিত।

পরিচিতি: চিত্রশিল্পী/অনুলিখন : সানিম আহমেদ/সম্পাদনা: আশিক রহমান